নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুধু আমাদের নয়, সারা বিশ্বের বাতিঘর উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমকক্ষ কোন নেতা বাংলাদেশে নেই। তিনি শুধু আমাদের নয়, সারা বিশ্বের বাতিঘর
তিনি বলেন, অনেকেই আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে অন্য কাউকে এক পাল্লায় মাপে। কিন্তু এটি অসম্ভব। শেখ হাসিনার সমকক্ষ কোন নেতা বাংলাদেশে নেই। একমাত্র শেখ হাসিনাই বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। বাকিরা খালি দেশকে পেছনের দিকে নিয়ে গেছেন।
রোববার (১৩ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে স্বপ্ন ফাউন্ডেশন আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।
ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও স্বপ্ন ফাউন্ডেশনের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির।
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি বলেন, সেদিন শুধু শেখ হাসিনা মুক্তি পাননি, বাংলাদেশের গণতন্ত্র ফিরে আসার পথ তৈরি হয়েছিল। তিনি মুক্তি পেয়েছেন বলেই আমরা ২০০৮ সালের নির্বাচন পেয়েছিলাম। এরপর একাধিকবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে সারা বিশ্বের সামনে শক্ত অবস্থানে নিয়ে গেছেন শেখ হাসিনা। আজ তিনি শুধু আমাদের নয় সারা বিশ্বের বাতিঘর।
এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার পদ্ধতির বিষয়ে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার কিভাবে নেয়া হবে সে বিষয়ে সরকার চিন্তাভাবনা করছে।
দীপু মনি বলেন, এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষা কোনো পদ্ধতিতে নেওয়া যায় কিংবা অন্য কোনোভাবে সেটি করা যায় কিনা সেটা চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, ১৩ জুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতিও ছিলো। কিন্তু এখন সীমান্ত এলাকায় করোনা বেড়ে যাওয়ায়, বাধ্য হয়ে ৩০ জুন পর্যন্ত ছুটি বাড়িয়েছি। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখা হচ্ছে। অনলাইনে শিক্ষা দেওয়ার বিষয়টি চলমান রয়েছে। নতুন পদ্ধতিতে বের করার চেষ্টা করছি।
তিনি আরো বলেন, স্বাভাবিক পড়াশুনা যেন বাড়িতে চালিয়ে যান সে বিষয়ে শিক্ষার্থীদের আহবান জানাই। এমন কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে না যে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি হয়। নিজেরা নিজেদেরকে পড়াশুনার সাথে সংযুক্ত রাখতে হবে।
অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, বঙ্গবন্ধু সৎ ছিলেন, সৎভাবে রাষ্ট্র পরিচালনা করেছেন, দেশের মানুষের জন্য জীনের অধিকাংশ সময় জেলে কাটিয়েছেন, তারপরেও তাকে সপরিবারে ঘাতকর হত্যা করেছে।
দেশে এক শ্রেণির মানুষ আছে যারা রাতের বেলায় টকশোতে ঝড় তুলেন কিন্তু তারা সাদাকে সাদা আর কালোকে কালো বলতে পারেন না। বিএনপির ক্ষমতায় থাকাকালীন সময় দেশে দুর্নীতি কায়েম করেছিলো খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে তার পুত্র তারেক। কিন্তু খালেদা জিয়াকে গ্রফতার না করে সেইদিন শেখ হাসিনাকে গ্রফতার করে। তারপরে খালেদা জিয়াকে গ্রফতার করে যা ছিলো সমতাল করে নেয়া।
তিনি বলেন,শেখ হাসিনার মতো একজন মহত মানুষ আছে বলেই বাংলাদেশ আজ উন্নত হয়েছে। আগে মানুষ একবেলা খেত পারতো না এখন
তিন বেলা খেতে পারে।
এই যে পরিবর্তন তা হয়েছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। শেখ হাসিনা বেচে থাকলে ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বে একটি উন্নত মডেল দেশ হিসেবে গড়ে ওঠবে বাংলাদেশ। শেখ হাসিনাকে যতই ক্ষতি করার চেষ্টা করা হক না কেনো আল্লাহ তাআলা তাকে রহমতে চাদর বিছিয়ে রক্ষা করবেন।

By sohail

Leave a Reply

Your email address will not be published.