কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার মোগলবাসা ইউনিয়নের চর সিতাইঝাড় গ্রামে সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে আলম মিয়া (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত আলম ওই গ্রামের এক চায়ের দোকানের কর্মচারী।

এ ঘটনায় ওই কন্যা শিশুর মা শুক্রবার সকালে কুড়িগ্রাম সদর থানায় একটি মামলা করেন। পরে শুক্রবার দুপুরে সদর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আলমকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়।

শিশুটির পরিবারের বরাত দিয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মো. শাহরিয়ার জানান, গত ৩ মে শিশুটিকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে চা কর্মচারী আলম। তিনদিন পর্যন্ত ঘটনাটি কাউকে বলেনি কন্যা শিশুটি। পরে প্রচণ্ড ব্যাথা ও রক্তপাত হওয়ায় গত রাতে মাকে সব ঘটনা খুলে বলে সে। পরে শিশুটিকে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, শিশুটির মা শহরে দর্জির কাজ করেন। তার বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করে ঢাকায় থাকেন। শিশুটি চর সিতাইঝাড়ে নানা-নানীর সঙ্গে থাকে। ঘটনার দিন শিশুটির নানা-নানী তাকে বাড়িতে রেখে রাস্তায় মাটির কাজ করতে যায়। এ ফাঁকে তাদের বাড়ি সংলগ্ন চায়ের কর্মচারী আলম শিশুটিকে ধর্ষণ করে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.