ক্রীড়া ডেস্ক

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধির কারণে আইপিএল খেলা বাদ দিয়ে দেশে ফিরে গেছেন রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর দুই অস্ট্রেলিয়ান বোলার রিচার্ডসন এবং অ্যাডাম জাম্পা। ফলে বিদেশি বোলার চেয়ে ফ্রাঞ্চাইজিগুলোর কাছে চিঠি দেয় বেঙ্গালুরু। তাদের কথা সাড়া দিয়েছে মুম্বাই। কিউই অলরান্ডার স্কট কুগলেইনকে ধারে পাঠিয়েছেন বিরাট কোহলিদের দলে।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের আসা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কারণে এবার দলগুলোকে নিজেদের রিজার্ভ খেলোয়াড় অন্য দলের কাছে ছেড়ে দেয়ার সুযোগ করে দিয়েছে আইপিএল আয়োজকরা। এ সুযোগ কাজে লাগিয়েই কুগলেইনকে দলে নিয়েছে টেবিল টপার বেঙ্গালুরু।

এ নিয়ে আইপিলে দ্বিতীয় দল পেলেন কুগলেইন, দুইবারই বদলি খেলোয়াড় হিসেবে। ২০১৯ সালের আসরে তিনি চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলেছিলেন দুইটি ম্যাচ। সেবার লুঙ্গি এনগিডির ইনজুরির কারণে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে দলে নিয়েছিল চেন্নাই।

ঠিক সময়ে দেশে পরিবারের কাছে ফিরতে পারবেন কি না—এ নিয়ে দ্বিধায় ভুগতে ভুগতে শেষ পর্যন্ত ভারত ত্যাগ করেছেন অস্ট্রেলিয়ান লেগ স্পিনার অ্যাডাম জাম্পা। চলে গিয়েছেন কেন রিচার্ডসনও। এ নিয়ে বেঙ্গালুরুর টুইট, ‘অ্যাডাম জাম্পা ও রিচার্ডসন ব্যক্তিগত কারণে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যাচ্ছেন। আইপিএলের বাকি মৌসুমে তাদের পাওয়া যাবে না।’

গত সপ্তাহে মোস্তাফিজের রাজস্থান রয়্যালস সতীর্থ লিয়াম লিভিংস্টোনও ফিরে যান ইংল্যান্ডে। আইপিএলে জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ দীর্ঘদিন থাকার ধকল নিতে পারছিলেন না তিনি। তবে আইপিএলের আয়োজক বিসিসিআই ও ফ্র্যাঞ্চাইজি দলগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে এবং দর্শকহীন মাঠে খেলা হওয়ায় খেলোয়াড়েরা পুরোপুরি সুরক্ষিত রয়েছেন এ টুর্নামেন্টে।

আর্চার-স্টোকসের ইনজুরি এবং লিভিংস্টোনের দেশে ফিরে যাওয়ার ফলে বিদেশি ক্রিকেটার সংকটে পড়েছে রাজস্থানও। মোস্তাফিজ ছাড়া রাজস্থানের চোটমুক্ত, খেলার মতো বিদেশি খেলোয়াড় বলতে এখন আছেন শুধু জস বাটলার, ক্রিস মরিস ও ডেভিড মিলার।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.