নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে পাঁচ শ্রমিক নিহতের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেছে পাঁচটি সংগঠন। সংগঠনগুলো হলো: বাংলাদেশ পরিবেশ আইনজীবী সমিতি (বেলা), বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট), নিজেরা করি, সেফটি অ্যান্ড রাইটস ও অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এএলআরডি)।

বুধবার ৫টি সংগঠনের পক্ষের আইনজীবী ও বেলার প্রধান নির্বাহী সৈয়দ রিজওয়ানা হাসান রিট করার বিষয়টি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

রিজওয়ানা হাসান বলেন, রিটে আমরা বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়েছি। যতক্ষণ পর্যন্ত তদন্ত শেষ না হয় ততক্ষণ পর্যন্ত কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশনা চেয়েছি। একইসঙ্গে বাঁশখালীতে শ্রমিকদের সার্বিক অবস্থা জানতে শ্রম অধিদপ্তরের কাছে একটি প্রতিবেদন চেয়েছি। এ ছাড়া শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে ৫ জন নিহতের ঘটনায় জেলা প্রসাশক (ডিসি) ও পুলিশ সুপার (এসপি)র নেতৃত্বে গঠন করা দুটি তদন্ত কমিটির রিপোর্ট দেয়ার নির্দেশনা প্রার্থনা করেছি।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্টে বেঞ্চে রিট আবেদনটির শুনানি হতে পারে।

এর আগে গত ২২ এপ্রিল একটি মানবাধিকার সংগঠন চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের শ্রমিক নিহতের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করে।

ওই রিটে পুলিশের গুলিতে নিহত প্রত্যেক পরিবারকে তিন কোটি টাকা ও আহত প্রত্যেকের পরিবারকে দুই কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়। এ ছাড়া ওই ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়েরের নির্দেশনা চাওয়া হয়। আইন ও সালিশ কেন্দ্রের পক্ষে অ্যাডভোকেট সৈয়দা নাসরিন এ রিট দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, গত ১৭ এপ্রিল চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ৫ শ্রমিক নিহত ও অন্তত ২০ জন আহত হন। বেতনভাতা ও কর্মঘণ্টা কমানো নিয়ে অসন্তোষের জেরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.