মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুরের রাজৈরে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক কিশোরকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ।গত ২০ এপ্রিলের ওই ঘটনার পর গুরুতর আহত অবস্থায় ওই কিশোর ভর্তি আছে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে। পরিবারের পক্ষ থেকে রাজৈর থানায় অবিযোগ দিলেও তা মামলা আকারে নেয়নি পুলিশ। এখনও গ্রেপ্তার হয়নি অপরাধীদের কেউই।

সোমবার সকালে সাংবাদিকদের মাধ্যমে ভূক্তভোগি পরিবার ওই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছে।

পরিবারটির লিখিত অভিযোগ থেকে জানা গেছে, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গত ১৯ এপ্রিল রাজৈর উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়নের উত্তর ঘোয়ালদি গ্রামের ফারুক শেখের ছেলে আরাফাত শেখের ওপর স্থানীয় একটি বাজারে প্রথম দফায় হামলা করে এলাকার এমারাত ও রাজিব। পরের দিন সকালে আবারও হামলায় হয় আরাফাতের ওপর। এদিন তারা চাইনিজ কুড়াল দিয়ে মাথায় কুপিয়ে আরাফাতকে মারাত্মক জখম করে। পরে আরাফাতকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আরাফাতের বাবা ফারুক শেখ বলেন, আমার ছেলেকে অস্ত্র দিয়ে স্থানীয় নান্নুর হুকুমে রাজীব, পান্নু, কামরুল ইসলাম, ভুট্টু, পলাশ, সোহেল মিলে পরিকল্পিতভাবে আঘাত করেছে। আমি থানায় অভিযোগ দিলেও এখনো মামলা হয়নি। আমি এই হামলার বিচার চাই।’

অভিযোগের বিষয় রাজিব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার বসত ঘর ফারুক শেখরা পুড়িয়ে দিয়েছে। আমি কোন হামলা করিনি।’

রাজৈর থানার ওসি শেখ সাদী জানান, ‘ওই এলাকায় জায়গা জমি নিয়ে বিরোধ আছে। দুই পক্ষই লিখিত অভিযোগ দিয়েছে, কারোটাই গ্রহণ করা হয়নি। তদন্ত করে মামলা রেকর্ড করা হবে।’

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.