বিনোদন প্রতিবেদক

কয়েকগুণ শক্তি নিয়ে ভারত-বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আছড়ে পড়েছে প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ। দিন যত যাচ্ছে ততই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বিশেষ করে, প্রতিবেশী দেশ ভারতের অবস্থা এতটাই ভয়াবহ যে সেখানে কয়েকটি রাজ্যে কারফিউ পর্যন্ত জারি করা হয়েছে। আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়িয়ে করোনা উদ্বেগ ছড়িয়েছে বাংলাদেশেও।

এই পরিস্থিতিতে দেশে আরও কড়া লকডাউন চাইলেন বিশিষ্ট অভিনেত্রী, প্রযোজক ও সংসদ সদস্য সুবর্ণা মুস্তাফা। প্রয়োজনে ভারতের মতো কারফিউ জারিরও পক্ষে তিনি। সম্প্রতি ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে এই কথা জানান প্রয়াত কিংবদন্তি অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার মেয়ে সুবর্ণা মুস্তাফা।

সুবর্ণা তার স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘লকডাউন আরও জোরালো ভাবে কার্যকর করা উচিত। আমরা এখনো মহামারির ভয়াবহতার মুখোমুখি হইনি, কিন্তু সে দিকেই যাচ্ছি। প্রয়োজনে সরকারের উচিত কারফিউ জারি করা। কারণ জীবন আগে।’

চলতি বছরের শীত যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শুরু হয় করোনার তান্ডব। এই মরণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইতোমধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন কিংবদন্তি চিত্রনায়িকা কবরী, অভিনেতা মহসিন, কণ্ঠশিল্পী মিতা হক, কণ্ঠযোদ্ধা ইন্দ্রমোহন রাজবংশী ও নমিতা ঘোষসহ প্রায় এক ডজন বিনোদন ব্যক্তিত্ব।

এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন নায়ক আলমগীর, লালনশিল্পী ফরিদা পারভীন, নাটক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরীসহ অনেকে। সব মিলিয়ে শঙ্কায় সুবর্ণা মুস্তাফা। তাইতো কঠোর লকডাউন, প্রয়োজনে কারফিউয়েরও পক্ষে এই অভিনেত্রী।

গত ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশে করোনা টিকার কার্যক্রম শুরু হলে একেবারে শুরুর দিকে টিকা নেন সুবর্ণা মুস্তাফা। জাতীয় সংসদ ভবনে টিকার নেয়ার সে ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে সবাইকে টিকা নিতে উৎসাহও দেন। যদিও টিকার দ্বিতীয় ডোজ এখনো নেননি আশি ও নব্বইয়ের জনপ্রিয় এই নায়িকা।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.