অর্থনৈতিক প্রতিবেদক

কোম্পানি আইন অনুযায়ী আগামী বুধবারের মধ্যে ন্যাশনাল ব্যাংকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিয়োগ দিতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এ সময়ের মধ্যে এমডি নিয়োগে না দিলে ব্যাংকটিতে প্রশাসক বসানো হবে বলে বাংলাদেশ ব্যাংক এক চিঠিতে প্রথম প্রজন্মের এ ব্যাংকের চেয়ারম্যানকে জানিয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের চিঠিতে বলা হয়, আগামী ২৮ এপ্রিলের মধ্যে এমডি নিয়োগ না দিলে ব্যাংক কোম্পানি আইনের ১৫(ক) ধারা অনুযায়ী কেন্দ্রীয় ব্যাংক ব্যবস্থা নেবে।

ব্যাংক কোম্পানি আইনের ১৫(ক) ধারার ২ উপধারায় বলা হয়েছে, কোনো ব্যাংকের এমডি পদ একাধারে তিন মাসের বেশি শূন্য রাখা যাবে না। ৩ উপধারায় বলা হয়েছে, এ সময়ের মধ্যে এমডি পদ পূরণ না হলে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রশাসক নিয়োগ দিতে পারে, যিনি ব্যাংকের এমডির দায়িত্ব পালন করবেন। এই হিসাবে আগামী বুধবারের মধ্যে এমডি নিয়োগ না দিলে ব্যাংকটিতে প্রশাসক দিতে পারবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এ বিষয়ে চিঠির সত্যতা স্বীকার করে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম ঢাকা টাইসমকে বলেন, ‘ব্যাংক কোম্পানি আইনে বলা আছে, কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে তিন মাসের বেশি এমডি পদ শূন্য রাখা যাবে না। তিন মাসের মধ্যে এমডি নিয়োগ দিতে ব্যর্থ হলে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা প্রশাসক নিয়োগ দিবে যত দিন এমডি না পাওয়া যাবে। আমরা চিঠি দিয়ে ব্যাংকটিকে কোম্পানি আইনটি মনে করে দিয়েছি মাত্র।’

ন্যাশনাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) চৌধুরী মোসতাক আহমেদের মেয়াদ শেষ হয় গত ২৮ জানুয়ারি। এরপর অতিরিক্ত এমডি এ এস এম বুলবুলকে ভারপ্রাপ্ত এমডির দায়িত্ব দেওয়া হয়। তার সময়েই ব্যাংকটিতে নানা অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। আবার চাকরির মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও তিনি দায়িত্ব চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ন্যাশনাল ব্যাংকে এ এসএম বুলবুলকে দ্বায়িত্ব পালন থেকে সরিয়ে দিতে বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গত ৭ এপ্রিল ন্যাশনাল ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দিয়ে বুলবুলকে সরিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিশ্চত করে। এরপর গত ১৩ এপ্রিল ব্যাংকের ৪৪৪তম পর্যদ সভায় ভারপ্রাপ্ত এমডি হিসেবে ব্যাংকের ডিএমডি শাহ্ সৈয়দ আব্দুল বারীকে দায়িত্ব দেয়া হয়।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.