ক্রীড়া ডেস্ক

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পোর্তোকে হারিয়ে ইতোমধ্যেই সেমিফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করা চেলসির লিগে এসে হঠাৎ ছন্দ পতন। ঘরের মাঠে পুচকে ব্রাইটন রুখে দিল দারুণ ফর্মে থাকা টমাস টুখেলের শিষ্যদের। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ম্যাচটি গোলশূন্য ব্যবধানে ড্র হয়েছে।

ব্রাইটনের বিপক্ষে ম্যাচ শুরুর আগে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজের বাইরে প্রায় হাজার খানেক সমর্থক জড়ো হয়ে তাদের প্রিয় দল চেলসির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানায়।

এর মাঝেই খবর আসে, সুপার লিগ থেকে নিজেদের সরিয়ে নিতে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ জানানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে চেলসি, সরে দাঁড়িয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।

বাইরে সমর্থকদের প্রতিবাদের কারণে টিম বাসের স্টেডিয়ামে আসতে দেরি হওয়ায় ম্যাচ শুরু হয় নির্ধারিত সময়ের ১৫ মিনিট পরে। শুরু থেকে বল দখলে চেলসি এগিয়ে থাকলেও প্রথমার্ধে গোলের উদ্দেশে তারা শট নিতে পারে কেবল ৩টি, এর দুটি লক্ষ্যে ছিল, ব্রাইটনের ৪ শটের একটি।

ষোড়শ মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে ক্রিস্টিয়ান পুলিসিকের শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। ২২তম মিনিটে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার অ্যাডাম ওয়েবস্টারের ভুলে ভালো পজিশনে বল পান কাই হার্ভাটজ। কাছ থেকে তার শট ফেরান গোলরক্ষক রবের্ত সানচেস। পরক্ষণে দূর থেকে কুর্ত জুমার শটও ঠেকান তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধে তেমন একটা সুবিধা করতে পারেনি স্বাগতিকরা। জুমার ভুলে ৭৮তম মিনিটে দলকে এগিয়ে নেওয়ার দারুণ একটি সুযোগ পান ব্রাইটনের অ্যাডাম লালানা। কিন্তু বাইরে মেরে হতাশ করেন তিনি।

পরের মিনিটে ভাগ্যের ফেরে গোল পায়নি সফরকারীরা। ডি-বক্সের বাইরে থেকে ড্যানি ওয়েলবেকের জোরালো শট পোস্টে লাগে।

যোগ করা সময়ে ক্যালাম হাডসন-ওডোইকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ব্রাইটনের বেন হোয়াইট।

ড্র হওয়ার ফলে ৩২ ম্যাচে ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থানে উঠেছে টমাস টুখেলের শিষ্যরা। সমান ম্যাচ মাত্র ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে ব্রাইটনের অবস্থান ১৭ নম্বরে। আর ৩১ ম্যাচে ৭১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিরে শীর্ষেই থাকছে ম্যানচেস্টার সিটি। সমান ম্যাচে ৬১ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে নগরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.