বিশেষ প্রতিবেদক :

সংশ্লিষ্ট তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

আজ সোমবার (১৯ এপ্রিল) সচিবালয় ক্লিনিকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেয়ার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা জানান।

জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের বিষয়ে একটি কমিটিকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সেটা কতদূর এগিয়েছে- জানতে চাইলে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী বলেন, আপডেট সেই কমিটি বলবে। এখন যেহেতু কোভিডের কারণে সব বন্ধ আছে, আমি ঠিক জানি না তাদের অগ্রগতি কী। এখনও তাদের নির্ধারিত সময় শেষ হয়নি। দুই মাস সময় ছিল, এখনও এক মাসের মতো বাকি আছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।

জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাব বাতিলের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)। জামুকার সদস্য ও সাংসদ মোশাররফ হোসেনকে কমিটির প্রধান করা হয়েছে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন সংসদ সদস্য শাজাহান খান ও মো. রশিদুল আলম।

লকডাউন বাড়ানোর বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এথনও সিদ্ধান্ত হয়নি। কিন্তু যে অবস্থা দেখা যাচ্ছে আমরা তো আশাব্যঞ্জক কিছু দেখছি না, প্রতিদিনই মৃত্যুর হার বাড়ছে। কাজেই সারা জাতি শঙ্কিত। একটা সরকার চেষ্টা করে। লকডাউন না দেয়ার জন্য, সবকিছু স্থবির করে দেয়া কখনোই সরকারের ইচ্ছা থাকে না। যদি এই অবস্থার উন্নতি না হয় তাহলে বাড়ার সম্ভাবনাই থাকবে।

By sohail

Leave a Reply

Your email address will not be published.