আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কোভিড-১৯-এর জন্য দায়ী সার্স-কোভ-২ ভাইরাস বায়ুবাহিত নয় বলে এত দিন দাবি করে আসা হয়েছে। কিন্তু সেই দাবি নস্যাৎ করে দিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশিত হলো আন্তর্জাতিক মেডিকেল জার্নাল ‘ল্যানসেট’-এ।

যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও কানাডার ছয় গবেষক যুক্ত রয়েছেন এই গবেষণায়। নিজেদের দাবির পিছনে অন্তত ১০টি কারণ ব্যাখ্যা করেছেন বিজ্ঞানীরা। তাদের বক্তব্য, জীবাণুটি বায়ুবাহিত হওয়ার পক্ষেই প্রমাণ বেশি। বাতাসে ভাসমান জলকণার মাধ্যমে ভাইরাসটি ছড়ানোর যুক্তি বরং মিলছে না।

ছয় বিজ্ঞানীর ব্যাখ্যা করা দশ পয়েন্ট:

১) সুপার-স্প্রেডার ঘটনাগুলোর ক্ষেত্রে মানুষের আচরণ, কোন পরিসরে ঘটেছে, ঘরের ভেন্টিলেশন ব্যবস্থা, এ সব খতিয়ে দেখা হয়েছে। তাতে স্পষ্ট শ্বাসপ্রশ্বাসে নির্গত জলকণা বা ড্রপলেটস-এর মাধ্যমে ভাইরাস ছড়ানো অসম্ভব।

২) পাশের ঘরে ছিলেন, সংক্রমিতের মুখোমুখি হননি, তাও করোনা-আক্রান্ত হন।

৩) আক্রান্তদের ৩৩ থেকে ৫৯% উপসর্গহীন। সেক্ষেত্রে কীভাবে ছড়াচ্ছে।

৪) বাইরের তুলনায় ঘরের ভিতরে বেশি সংক্রমণ ঘটছে।

৫) হাসপাতাল কর্মীরা পিপিই পরেও আক্রান্ত হচ্ছেন।

৬) কোভিড আক্রান্তের ঘরের বাতাসে ভাইরাস মিলেছে।

৭) কোভিড হাসপাতালের এয়ার ফিল্টারে ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে।

৮) খাঁচা-বন্দি প্রাণীরা সংক্রমিত হয়েছে এয়ার ডাক্ট থেকে।

৯) কোনো গবেষণা এ পর্যন্ত ভাইরাসটি বায়ুবাহিত না-হওয়ার পক্ষে প্রমাণ নেই।

১০) ড্রপলেটসে ভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ বিশেষ নেই।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.