নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা আক্রান্ত হলেও এখন পর্যন্ত শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। শারীরিক অবস্থা এমন স্থিতিশীল থাকলে বাসায় রেখেই তার চিকিৎসা কার্যক্রম চালানোর কথা ভাবছেন চিকিৎসকরা।

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের সদস্য ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বুধবার ঢাকা টাইমসকে বলেন, অবস্থার পরিবর্তন না হলে বাসায় রেখেই তার চিকিৎসা চলবে।

বিকালে ডা. জাহিদ বলেন, দুপুরের দিকে খোঁজ নিয়েছি ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) ভালো আছেন। তার শারীরিক অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি। ম্যাডামের শরীরের যে অবস্থা, সেটি যদি আগামী সপ্তাহে একই রকম থাকে, তাহলে ভয়ের কিছু থাকবে না। এখন তার শরীরের যে অবস্থা তাতে বাসায় রেখে এভাবেই চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া যাবে।

এদিকে বেগম খালেদা জিয়ার রক্তের বায়োকেমিক্যাল স্যাম্পলের রিপোর্ট হাতে পৌঁছেছে বলে জানিয়েছেন আরেক চিকিৎসক আল মামুন। এ বিষয়ে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে জরুরি মেডিকেল বোর্ড আহ্বান করা হয়েছে।

তবে রক্তের বায়োকেমিক্যাল স্যাম্পলের রিপোর্টে কোনো ত্রুটি খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে দাবি এই চিকিৎসকের।

তিনি জানান, লন্ডন থেকে পুত্রবধূ ডা. জোবায়দা রহমান দেশে-বিদেশে বিভিন্ন চিকিৎসকদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে বেগম জিয়ার সুচিকিৎসার তদারকি করছেন। এছাড়া তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সমন্বয়ও করছেন ডা. জোবায়দা রহমান।

গত রবিবার বেগম খালেদা জিয়ার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। ওই দিন বিকালে বিএনপি চেয়ারপারসনের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার আগে সকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে তার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি জানানো হয়।

খালেদা জিয়া ছাড়াও তার বাসায় আরও আটজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. মামুন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.