নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের মিঠাপুকুর থানার পায়রাবন্দ এলাকায় চাঞ্চল্যকর গৃহবধূ আইরিন হত্যা মামলার প্রধান আসামি ও নিহতের স্বামী তুষার আলম ওরফে জীবনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) দুপুরে স্ত্রী হত্যায় অভিযুক্ত জীবনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি পিঠাপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) কামরুজ্জামান নিশ্চিত করেছেন।

কামরুজ্জামান জানান, গত ১২ এপ্রিল রাত আড়াইটার দিকে যৌতুকের দাবিতে শয়ন কক্ষে ঘুমন্ত স্ত্রীকে ডিস লাইনের তার গলায় পেচিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে তুষার আলম ওরফে জীবন। হত্যার পরপরই পালিয়ে যান তিনি। এই ঘটনায় মিঠাপুকুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে নিহত আইরিনের পরিবার। ঘটনার দিন আইরিনের শাশুড়ি নুরজাহানকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপরই জীবনকে ধরতে মাঠে নামে মিঠাপুকুর থানার পুলিশ। ঘটনার একদিন পরে পঞ্চগড় জেলার বোদা থানায় অভিযান চালিয়ে জীবনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নিহত আইরিনের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মোসলেমা বেগম ওরফে আইরিনের সঙ্গে তিন বছর আগে একই উপজেলার তুষার আলম ওরফে জীবনের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই মায়ের প্ররোচনায় জীবন বিভিন্ন সময়ে যৌতুকের জন্য আইরিনকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছিল। শ্বশুর বাড়ির অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে আইরিন তার বাবার বাড়ি থেকে দুই দফায় ৩০ হাজার টাকা এনে দেন। এরপরও জীবন আবারও তাকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন শুরু করে। পরে ঘটনার দিন মায়ের সহযোগিতায় জীবন তার স্ত্রীর গলায় ডিশ লাইনের তার পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। যৌতুকের জন্য এভাবে নির্মম হত্যার ঘটনায় দায়িদের উপযুক্ত বিচার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.