আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে দুই হাজার ৩০০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির প্রক্রিয়া এগিয়ে নিচ্ছে জো বাইডেনের প্রশাসন। এই বিপুল অংকের অস্ত্র চালানের মধ্যে অত্যাধুনিক এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান এবং আর্মড ড্রোন থাকবে।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের একজন মুখপাত্র রয়টার্সকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এ বিষয়টি নিয়ে মার্কিন সরকার সংযুক্ত আরব আমিরাতের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পর্যালোচনা ও পরামর্শ করছে। এসব অস্ত্র আমিরাত সরকার কোথায় ব্যবহার করবে তা জানার চেষ্টা করছে ওয়াশিংটন।

বাইডেন নেতৃত্বাধীন প্রশাসন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সম্মতিতে হওয়া বেশ কিছু চুক্তি পর্যালোচনার জন্য রেখেছিল। ট্রাম্প প্রশাসন গত নভেম্বরে কংগ্রেসকে জানায়, আরব আমিরাতে অস্ত্র বিক্রি করতে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে সম্মত হওয়ায় আমিরাতকে অস্ত্র দিতে রাজি হয় ট্রাম্প প্রশাসন।

কিন্তু জো বাইডেন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার পর ডোনাল্ড ট্রাম্পের শেষ সময়ে আমিরাতের সঙ্গে সই হওয়া চুক্তি পর্যালোচনার জন্য স্থগিত করে।

চুক্তিটি কার্যকর হলে আরব আমিরাত ৫০টি এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান ও ১৮টি এমকিউ-৯বি ড্রোন পাবে। এছাড়া, আকাশ থেকে আকাশে ও ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র থাকবে। ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে কথিত শান্তি চুক্তি সই করার পরপরই তৎকালীন ট্রাম্প প্রশাসন সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে এসব অস্ত্র বিক্রির উদ্যোগ নেয়।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.