সুনামগঞ্জের শাল্লায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকদের বাড়িঘরে যে হামলার ঘটনা ঘটেছে এর পেছনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের লোকেরা জড়িত বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায়। এই সরকারের আমলে কোনো ধর্মের লোকেরাই নিরাপদ নয় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

শনিবার দুপুরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় ও কেন্দ্রীয় মহিলা ও শিশু অধিকার কমিটির মহাসচিব বিএনপির নেত্রী অ্যাডভোকেট নিপুণ রায়ের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় বিএনপি ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার হাবিবপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামে আসে। তারা দলটি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িতে হামলার ঘটনায় সরেজমিনে দেখতে ও ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে নোয়াগাঁও গ্রামে এসেছেন বলে জানান।

এসময় তারা ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িতে যান এবং তাদের সঙ্গে কথা বলে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করেন।

গ্রামবাসীর উদ্দেশ্যে নিতাই রায় বলেন, ‘শাল্লার ঘটনা যারা ঘটিয়েছে তারা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের নাম মিডিয়ায় প্রকাশ হয়েছে। এই ঘটনার জন্য বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়েক তারেক রহমানসহ আমরা গভীরভাবে মর্মাহত। বিনাভোটের সরকারের অধীনে কোনো ধর্মের লোকই আজ নিরাপদ নয়। আমরা এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দ্রুত শাস্তিমূলক ব্যবস্থার দাবি জানাচ্ছি।’

নিতাই রায় বলেন, ‘আমরা আপনাদের পাশে থাকবো। আমাদের নেতা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়েক তারেক রহমানের নির্দেশে আমরা আপনাদের পাশে এসেছি। আমরা এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসাপেক্ষে আসল দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’

বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায় চৌধুরী বলেন, ‘আমরা মর্মাহত, বাকরুদ্ধ। এই ধরনের ঘটনার জন্য তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। আর যাতে কোনো নিরপরাধ মানুষ হয়রানির শিকার না হয় সেই বিষয়টি ও প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন মিলন, সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুল, শাল্লা উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গনেন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আওয়াল, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব সোবহানী চৌধুরী, দিরাই উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, দিরাই উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক মইন উদ্দিন চৌধুরী মাসুকসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতারা।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.