জাতীয় জরুরি সেবা ‘৯৯৯’- এ ফোন কলে সেন্টমার্টিনের ছেঁড়া দ্বীপের কাছে বিকল নৌযানের ১৫ যাত্রীকে উদ্ধার করেছে সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ড। উদ্ধারের পর তাদের সেন্টমার্টিন দ্বীপে পৌঁছে দেয়া হয়।

শুক্রবার জাতীয় জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় সেন্টমাটির্নের ছেঁড়া দ্বীপের কাছে পর্যটকবাহী একটি নৌযান বিকল হয়ে পড়লে আব্দুল্লাহ নামে এক পর্যটক ‘৯৯৯’ নম্বরে ফোন করে জরুরি উদ্ধার সহায়তা চান।

তিনি জানান, তার পরিবারের সদস্য তিনজন নারীসহ ১৫ জন পর্যটক সেন্টমার্টিন থেকে একটি ইঞ্জিনচালিত নৌযান যোগে ছেঁড়া দ্বীপ ভ্রমণের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন। কিন্তু ছেঁড়া দ্বীপের কাছাকাছি বঙ্গোপসাগরের একটি স্থানে তাদের নৌযানের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। নৌযানের চালক প্রায় ঘণ্টাখানেক চেষ্টা করেও ইঞ্জিন সচল করতে পারেননি। এই অবস্থায় সাগরে বিকল নৌযানে অবস্থিত পর্যটকরা ভীত ও শঙ্কিত হয়ে পড়েন। এসময় ফোন কলার তাদের উদ্ধারের ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানান।

জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি কক্সবাজার সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ডে জানিয়ে উদ্ধারের ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানায়। ‘৯৯৯’ থেকে সংবাদ পেয়ে সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ডের একটি উদ্ধারকারী দল রওনা দেয়।

পরে সেন্টমার্টিন কোস্টগার্ডের লে. কমান্ডার সা’দ ‘৯৯৯’ কে ফোনে জানান, তারা পর্যটকদের উদ্ধারে একটি উদ্ধারকারী নৌযান পাঠিয়েছেন এবং তিনজন নারীসহ ১৫ জন পর্যটক ও বিকল নৌযানটিকে নিরাপদে সেন্টমার্টিন নিয়ে এসেছেন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.