চট্টগ্রামের সকল অবৈধ ইটভাটা বন্ধ না করায় চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক (ডিসি), পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক ও উপ-পরিচালকের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেছে হাইকোর্ট।

পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কামরুল হোসেন মোল্লার দ্বৈত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতের এই আদেশের কপি পাওয়ার ১০ দিনের মধ্যে তাদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে আগামী ৮ এপ্রিল পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি দেন তিনি। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি দেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ মো. রাসেল চৌধুরী। আর পরিবেশ অধিদপ্তরের পক্ষে শুনানি দেন আইনজীবী কামরুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের সব অবৈধ ইটভাটা সাত দিনের মধ্যে বন্ধের নির্দেশ দেন আদালত। ওই সময় যেসব ইটভাটা কাঠ ও পাহাড়ের মাটি ব্যবহার করেছে তাদের তালিকা দেওয়ার জন্যও বলা হয়। পরে চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি ও ২৫ ফেব্রুয়ারি এ বিষয়ে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালকের প্রতি আবার একই নির্দেশ দেওয়া হয়। হাইকোর্টের এ আদেশের বিরুদ্ধে ইটভাটার মালিকরা আপিল বিভাগে আবেদন করেছিলেন। তবে আপিল বিভাগ হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেননি।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.