স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশে এসেই মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ছুটে গেলেন জাতীয় স্মৃতিসৌধে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে। বুধবার সকালে শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে দর্শন বইয়ে স্বাক্ষর করেন তিনি। পরে স্মৃতিসৌধ চত্বরে একটি বকুল গাছের চারা রোপণ করে সড়কপথে ঢাকায় ফেরেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ।

বুধবার সকালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট। সেখানে তাকে স্বাগত জানান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের সম্মানে ২১ বার তোপধ্বনি দেয়া হয়। বিমানবন্দরে কুশল বিনিময় শেষে সড়কপথে জাতীয় স্মৃতিসৌধে গিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট বুধবার বিকালে জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। সেখানে তিনি সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন।

বৃহস্পতিবার তিনি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করবেন। শুক্রবার সকালে তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন।

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সে দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, অর্থনৈতিক উন্নয়ন মন্ত্রী ও অন্য পদস্থ কর্মকর্তারা এসেছেন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.