জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর ১০ দিনব্যাপী রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান। আজ বুধবার বিকালে সাড়ে চারটায় জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে শিশুদের সমবেত জাতীয় সংগীত গাওয়ার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন হয়।

এ সময় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইবরাহিম মোহাম্মদ সালিহ, তার স্ত্রী ফার্স্ট লেডি ফাজনা আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় সংগীত পরিবেশনা শেষে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও অন্যান্য ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করা হয়। প্রদর্শন করা হয় প্রামাণ্য চিত্র। আয়োজনে আলোচনা ছাড়াও থাকছে সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা। বঙ্গবন্ধুর কর্মজীবন নিয়ে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হবে প্রতিটি পরিবেশনায়।

গান-নাচ, অভিনয়সহ নানাভাবে তুলে ধরা হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় জীবন। ১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে দেশি-বিদেশি অতিথিরা উপস্থিত থাকবেন।

চলমান করোনাভাইরাস মহামারির কারণে অতিথি আমন্ত্রণ সীমিত করা হয়েছে। প্রতিদিনের জন্য ৫০০ করে অতিথিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আগত সবাইকে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করে অনুষ্ঠানস্থলে ঢুকতে হবে।

আগত অতিথিদের বাংলাদেশ সম্পর্কে ধারণা দিতে আয়োজনের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হচ্ছে। নানান শৈল্পিকতায় অনুষ্ঠানস্থলে তৈরি করা হয়েছে শহীদ মিনার, পদ্মা সেতু, গ্রামীণ জীবনযাপনের আবহ, জাতীয় মাছ ইলিশসহ নানা দৃষ্টিনন্দন উপস্থাপনা।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.