করোনাভাইরাস মহামারি প্রতিরোধে সীমান্ত বন্ধ রেখেছে নগররাষ্ট্র সিঙ্গাপুর। তবে বিশ্বব্যাপী যে হারে টিকাদান চলছে তাতে চলতি বছরের শেষে সীমান্ত খুলে দেয়া সম্ভব হতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী লি হিয়েন লং। বিবিসিকে সাক্ষাৎকারে এমনটি জানিয়েছেন তিনি।

রবিবার সাক্ষাৎকারে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘চলতি বছরের শেষ পর্যন্ত যদি সব দেশ তাদের অধিকাংশ মানুষকে ভ্যাকসিন প্রদান করতে পারে তবে আমরা এ বিষয়ে আশ্বস্ত হতে পারব এবং আন্তর্জাতিক সীমান্ত ভ্রমণকারীদের জন্য খুলে দিতে পারব।’

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সিঙ্গাপুর। তবে ব্যবসায়িক ও পেশাগত কাজে ভ্রমণ করা যাবে দেশটিতে। প্রধানমন্ত্রী লি বলেন, এটা সম্ভবত চলতি বছরের শেষে বা আগামী বছরের শুরুতেই হতে পারে। এই সময়ের মধ্যেই আমরা ভ্রমণকারীদের জন্য নিজেদের দ্বার উন্মুক্ত করতে পারব।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকেই গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে সিঙ্গাপুর। যার কারণে করোনা নিয়ন্ত্রণে অনেকটাই সফল হয়েছে দেশটি। এরই মধ্যে সেখানে টিকাদান শুরু হয়েছে। চলতি বছরের মধ্যে সব নাগরিককে টিকা প্রদানের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে লি সরকার।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.