নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম মাসদাইর এলাকায় ছয়তলা ভবনের একটি ফ্ল্যাটে সিলিন্ডারের গ্যাস জমে বিস্ফোরণে দগ্ধদের মধ্যে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম সাব্বির হোসেন।

শনিবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থাপিত শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৫ বছর বয়সী এই কিশোরের মৃত্যু হয়।

সাব্বিরকে নিয়ে বিস্ফোরণের ওই ঘটনায় মোট চারজনের মৃত্যু হলো। মারা যাওয়া সাব্বির মাসদাইর এলাকার মো. তামিমের ছেলে।

এর আগে যাদের মৃত্যু হয়েছিল তারা হলেন সাব্বিরের মামা মো. মিশাল, মিশালের দেড় বছরের শিশু মিনহাজ, চাচাতো শ্যালক মাহফুজ। আশঙ্কাজনক অবস্থায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন আছেন নিহত মিশালের স্ত্রী মিতা আক্তার ও তাদের মেয়ে আফসানা আক্তার।

সাব্বিরের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, দগ্ধ বাকি দুইজনের অবস্থাও খুব একটা ভালো নয়।

গত সোমবার দিবাগত রাতে পশ্চিম মাসদাইর এলাকায় হাজী ভিলার ছয়তলার ফ্ল্যাটে বিকট শব্দে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণে একই পরিবারের ছয়জন দগ্ধ হন। বিস্ফোরণে ওই ঘরের দরজা-জানালার কাচ ভেঙে গেছে এবং ঘরের আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে যায়। দগ্ধদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

By admin

One thought on “নারায়ণগঞ্জে ভবনে বিস্ফোরণ: চলে গেলেন সাব্বিরও”

Leave a Reply

Your email address will not be published.