রাজশাহী রেঞ্জের অ্যাডিশনাল ডিআইজি জয়দেব কুমার ভদ্র বলেছেন, সমাজের অপরাধ কমাতে নিজের সন্তানের প্রতি খেয়াল রাখার পাশাপাশি তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করতে হবে। মানুষের সামর্থ যতো বাড়তে থাকে, তখন স্বপ্ন আর চাহিদাও বাড়তে থাকে। এখন আমাদের স্বপ্ন আরো ভাল থাকা। আমরা যদি আরো ভাল থাকতে চাই, তাহলে পুলিশের পাশে থাকতে হবে।

বৃহস্পতিবার বিকালে পাবনার চাটমোহরে মাদক, জঙ্গিবাদ, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং, নারী ও শিশু নির্যাতনবিরোধী বিট পু্লিিশং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জয়দেব কুমার ভদ্র আরো বলেন, পুলিশের আইজি সাহেবের উদ্যোগ হলো ইউনিয়নে যাবে পুলিশ। মানুষের পাশে থাকবে পুলিশ। এক কথায় মানুষের দোরগোড়ায় পুলিশের সেবা পৌঁছে দিতে বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে জনগণের সাথে পুলিশের সরাসরি যোগাযোগ হবে। কোনো কিছু ঘটলে প্রথমে বিট পুলিশিং এর কাছে যেতে হবে। কোনো পুলিশ যদি দুর্নীতি করে, মানুষকে হয়রানি করে তাহলে জানাবেন। আমরা ব্যবস্থা নেব। দুষ্টু গরুর চাইতে শূন্য গোয়াল অনেক ভাল।

তিনি বলেন, আগামীতে আমরা হঠাৎ করে যে কোনো ইউনিয়নে হাজির হব, দেখব বিট পুলিশের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে সবার যোগাযোগ আছে কিনা। স্কুল, মাদ্রাসার শিক্ষক-সভাপতি, শিক্ষার্থী, সাধারণ মানুষ বিট পুলিশিং সম্পর্কে কি জানে, কেমন সেবা তারা পাচ্ছেন। আগামী ২/৩ মাস পর এই প্রক্রিয়া শুরু করব। বাংলাদেশে পুলিশের সকল সদস্য সবসময় প্রস্তুত আছে, দেশের স্বার্থে যে কোনো পরিস্থিতিতে স্বাধীনতা যুদ্ধের মতো লড়াই করতে।

মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে ১৩ নম্বর বিট পুলিশিং ইউনিটের উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদার ভাইস প্রিন্সিপাল ডিআইজি এসএম আকতারুজ্জামান, র‌্যাব-৪ এর পরিচালক অ্যাডিশনাল ডিআইজি মোজাম্মেল হক, পাবনার পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান, চাটমোহর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সজীব শাহরীন। স্বাগত বক্তব্য দেন- চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম।

র‌্যাব-৪ এর পরিচালক অ্যাডিশনাল ডিআইজি মোজাম্মেল হক তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কারণে আজ প্রতিটি গ্রামে পাকা রাস্তা, প্রতিটি বাড়িতে শতভাগ বিদ্যুৎ, উন্নয়নশীল দেশের মহাসড়কে যুক্ত হয়েছে দেশ। সাধারণ মানুষ আজ অনেক শান্তিতে আছে। মাদ্রাসার শিক্ষকরা আগে বেতন পেতেন না। এই সরকার সকল মাদ্রাসার শিক্ষকদের বেতন দিচ্ছে। প্রত্যেক উপজেলা পর্যায়ে একটি করে চারতলা কেন্দ্রীয় মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যার কারণে মানুষ আজ ভাল আছে। সেই সরকারের বিরুদ্ধে যদি কেউ মিথ্যা অপপ্রচার চালায় তার বিরুদ্ধে সবাইকে রুখে দাঁড়াতে হবে। আমাদের দেশের কিছু মানুষ ধর্মের নামে জঙ্গিবাদ ছড়াচ্ছে। এমন ধরনের কোনো লোক যদি আপনার এলাকায় আসে তাদের ধরে পুলিশে সোপর্দ করুন। মাদক ব্যবসায়ীদের চিহ্নিত করে পুলিশকে জানান। এভাবেই সবার পারস্পরিক সহযোগিতায় সমাজের মানুষ ভাল থাকতে পারবে।

পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান বলেন, আমাদের সন্তান কোথায় যাচ্ছে, খোঁজ রাখতে হবে। কার সাথে মিশছে দেখতে হবে। পুলিশের একার পক্ষে সবার নিরাপত্তা দেয়া সম্ভব নয়। আমাদের লোকবল ও গাড়ি সংকট রয়েছে। এজন্য আমাদের দরকার আপনাদের। আপনারা তথ্য দিয়ে বিট পুলিশিংকে সহযোগিতা করুন। আপনারা যাতে নিশ্চিতে রাতে ঘুমাতে পারেন, আপনার সন্তান যাতে নিরাপদে চলাচল করতে পারে, সেদিকে লক্ষ্য রেখে পুলিশ প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। আপনারা যদি থানায় সেবা না পান, তাহলে পুলিশ সুপারকে জানাবেন।

মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার আজিজুল হকের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন- জেলা পরিষদ সদস্য সাইদুল ইসলাম, চাটমোহর প্রেসক্লাবের সভাপতি রকিবুর রহমান টুকুন, ইউপি সদস্য ইয়াসিন আলী, মথুরাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য প্রভাষক বেনজীর আহমেদ।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.