বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে ভাইরাস পাসপোর্ট চালু করেছে চীন। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সম্প্রতি বিশ্বে আলোচনায় ছিল ভাইরাস পাসপোর্ট। শেষ পর্যন্ত সবার আগে তা চালু করলো শি জিনপিং প্রশাসন। খবর আল জাজিরার

সোমবার থেকে এই পাসপোর্ট চালু করেছে চীন। ভাইরাস পাসপোর্ট হলো ডিজিটাল স্বাস্থ্যসনদ। এই সনদে যাত্রীর টিকাদানের তথ্য ও করোনা পরীক্ষার ফলাফলের তথ্য থাকবে। নিজস্ব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম উইচ্যাটের মাধ্যমে চীনা নাগরিকরা এই সনদ পাবেন।

খবরে বলা হয়েছে, কেউ চাইলে ডিজিটাল স্বাস্থ্যসনদ ছাড়াও কাগজে ছাপানো স্বাস্থ্যসনদও সংগ্রহ করতে পারবেন। দেশটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে এটিই এখন পর্যন্ত বিশ্বের প্রথম ‘ভাইরাস পাসপোর্ট’।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, ‘বিশ্ব অর্থনীতি পুনরুদ্ধার এবং আন্তসীমান্ত ভ্রমণের সহায়তায় এই সনদ চালু করা হলো।’

ডিজিটাল এই স্বাস্থ্যসনদে একটি কিউআর কোড যুক্ত আছে। এর মাধ্যমে কোন দেশ চাইলে ভ্রমণকারীর তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে। ইতোমধ্যে দেশটির অভ্যন্তরীণ যাতায়াত এবং জনসমাগমস্থলে প্রবেশের জন্য উইচ্যাটের মাধ্যমে কিউআর কোডের শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

চীন ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেনসহ আরও কয়েকটি দেশ এ ধরণের ডিজিটাল পাসপোর্ট চালুর কথা ভাবছে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) টিকা গ্রহণকারীদের জন্য একই ধরনের ‘গ্রিন পাস’ নিয়ে কাজ করছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.